শুক্রবার, ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, বসন্তকাল | ২০শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
শুক্রবার, ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ২০শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সিলেট থেকে নৌকার প্রচারণা শুরু করবেন প্রধানমন্ত্রী

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

নিজস্ব প্রতিনিধি:

অতীতের ধারাবাহিকতায় এবারও পুণ্যভূমি সিলেট থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। বুধবার (২০ ডিসেম্বর) সিলেটের শাহজালাল (রহ.) ও হজরত শাহপরানের (রহ.) মাজার জিয়ারত শেষে জনসভার মধ্যদিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হবে নির্বাচনী প্রচারণা।
সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠে আয়োজিত প্রথম নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখবেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরমধ্যে সমাবেশের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।
এদিকে প্রধানমন্ত্রীর সফর ঘিরে সিলেটে উজ্জীবিত আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। জননেত্রীর আগমনকে ঘিরে সিলেটজুড়ে বইছে উৎসবের আমেজ। তোরণ, ব্যানার-ফেস্টুনে সেজেছে সিলেট নগরী। জনসভায় ১০ লাখ লোকের সমাগম করতে কাজ করছেন নেতাকর্মীরা।


মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) সকালে সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠে গিয়ে দেখা গেছে, জনসভার মঞ্চ প্রস্তুতির কাজ প্রায় শেষের পর্যায়ে। মঞ্চের পেছনে ব্যানার লাগানোর কাজও শেষ। বিপুল সংখ্যক নিরাপত্তাকর্মীদের উপস্থিতিতে বাকি কাজ শেষ করতে তৎপরতা চলছে। এছাড়া সমাবেশ স্থলের চারপাশে বাঁশ দিয়ে শক্ত বেষ্টনী গড়ে তোলা হয়েছে। নেতাকর্মীদের সমাবেশস্থলে প্রবেশের জন্য পৃথক লেন তৈরি করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থলের সার্বিক নিরাপত্তায় কাজ করছেন স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স (এসএসএফ)। তাদের সহযোগিতা করতে পুলিশসহ বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা কাজ করছেন।
নগরীর প্রতিটি অলিগলিতে সৌন্দর্যবর্ধনের কাজ করা হয়েছে। বিশেষ করে নগরীর চৌহাট্টা, রিকাবিবাজার, লামাবাজার, দরগাহ গেইট, আম্বরখানা ও বিমানবন্দর সড়ক সংস্কার করা হয়েছে। নগরীর গুরুত্বপূর্ণ সড়কে শোভা পাচ্ছে সারি-সারি ফুলের গাছ।
এর আগে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগেও সিলেট থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছিলেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। সে সময়ও হজরত শাহজালাল (রহ.) ও হজরত শাহপরানের (রহ.) মাজার জিয়ারত এবং আলিয়া মাদরাসা মাঠে সমাবেশ করেছিলেন। এবারও তার সফর সূচিতে এসব কর্মসূচি রয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর সমাবেশ সফল করতে গত ১৩ ডিসেম্বর প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবীর নানক ও যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফসহ কেন্দ্রীয় নেতারা সিলেট সফরে আসেন। এসময় বৃহত্তর সিলেটের আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীদের নিয়ে বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ২০ ডিসেম্বর আলিয়া মাদরাসা মাঠের জনসমাবেশ স্মরণকালের বৃহৎ করার নির্দেশনা দেন কেন্দ্রীয় নেতারা। এসময় সিলেট বিভাগের ১৯টি আসনের সকল নৌকার প্রার্থীকে অন্তত ১০ হাজার করে লোক নিয়ে আসার নির্দেশনা দেওয়া হয়। সভা শেষে আলিয়া মাদরাসা মাঠ পরিদর্শন করে কেন্দ্রীয় নেতারা বলেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রথম নির্বাচনী জনসভায় অন্তত ১০ লাখ লোকের সমাগম হবে।


সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত সিলেটবাসী। এরমধ্যে জনসভার সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এবার জননেত্রীকে স্বাগত জানাতে অপেক্ষার পালা।
তিনি বলেন, সিলেটবাসীর প্রতি বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সব সময় আন্তরিক। জনসভায় সিলেটের উন্নয়নে কথা বলবেন। তাছাড়া নির্বাচন নৌকায় ভোট চাওয়ার বিভিন্ন নির্দেশনা দেবেন।
সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র হিসেবে এবার প্রথম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বরণ করতে যাচ্ছেন মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। এজন্য তিনি গত কয়েকদিন ধরে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। মেয়র আনোয়ারুজ্জামান বলেন, আমরা নির্বাচনের আচরনবিধির প্রতি খুবই যত্মবান। যার কারণে প্রধানমন্ত্রীর সিলেট সফর নিয়ে আচরনবিধি লঙ্ঘন হয় এমন কোনো কাজ করছি না। তবে জনসভাকে জনসমুদ্রে পরিণত করতে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছি। আলিয়া মাদরাসা মাঠে ১০ লাখ মানুষের সমাগম ঘটাতে আমরা কাজ করছি।

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন দিন