সোমবার, ২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, বসন্তকাল | ২৩শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সোমবার, ২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ২৩শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সিরিজ বাঁচাতে জিততেই হবে বাংলাদেশকে

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

ক্রীড়া ডেস্ক:

ডানেডিনে বাংলাদেশের হারের কারণ ব্যাটিং ব্যর্থতা। বিশ্বকাপ থেকে ব্যাটিংয়েই যত সমস্যা। ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত নিউজিল্যান্ডের মাটিতে নতুন স্বপ্ন দেখাতে চেয়েছিলেন। সেখানে প্রথম ওয়ানডেতে ধাক্কা খেয়েছে দল। ৪৪ রানের হারে সিরিজে ১-০তে পিছিয়ে। সিরিজ বাঁচাতে আগামীকাল নেলসনে জিততেই হবে সফরকারীদের। আর জিততে হলে ব্যাটিংয়ে ভালো করা ছাড়া অন্য কোনো পথ নেই। ম্যাচটি শুরু হবে বুধবার বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টায়। সরাসরি দেখা যাবে গ্রিন টিভিতে।
বাংলাদেশের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের দলে থাকা দুই ক্রিকেটারকে ‘ছেড়ে দিয়েছে’ নিউজিল্যান্ড। পেসার কাইল জেমিসনকে নিয়ে ঝুঁকি নিতে চায়নি তারা। তাকে পরের দুই ওয়ানডে ম্যাচে রাখা হয়নি। তার সঙ্গে ব্যাটার ফিন অ্যালেন দ্বিতীয় ওয়ানডেতে থাকবেন না। টি ২০ সিরিজের জন্য জেমিসনকে বিশ্রামে পাঠানো হয়েছে। অ্যালেন ঘরোয়া টি ২০ লিগে খেলবেন। বাংলাদেশের বিপক্ষে পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য এই দুটি পরিবর্তন। এছাড়া সামনে অনেক ম্যাচ থাকায় ইনজুরি শঙ্কা থেকেও অনেককে বিশ্রামে রাখছে কিউইরা।
প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে একমাত্র শরীফুল ইসলাম ছাড়া আর কেউ ভালো করতে পারেননি। নিউজিল্যান্ডের উইকেটে রান হয়। মাঠ ছোট হওয়ায় প্রচুর রান ওঠে। বাংলাদেশের বোলাররা প্রথম ওয়ানডেতে নিউজিল্যান্ডকে অনেকটাই চাপে রেখেছিল। সে সময় বোলাররা সুবিধা পেয়েছিলেন। কিন্তু শেষ ১০ ওভারে কিউই ব্যাটাররা তাণ্ডব চালিয়ে ব্যবধান গড়েন। সুযোগ নিতে পারেননি বাংলাদেশের ব্যাটাররা। ৩০ ওভারে ২৪৫ রানের লক্ষ্যে নেমে বাংলাদেশের কেউ ফিফটি করতে পারেননি। ছয় ব্যাটার দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছালেও বড় স্কোরের দায়িত্ব নিতে পারেননি কেউ। ওপেনিং নিয়ে সমস্যার শুরু প্রথম ম্যাচ থেকে। অনেক সমালোচনার পর দলে জায়গা পাওয়া সৌম্য সরকার প্রথমেই ব্যর্থ। শূন্য রানে আউট হন। দ্বিতীয় ম্যাচেও হয়তো তার ওপর আস্থা রাখতে পারে টিম ম্যানেজমেন্ট। আরেক ওপেনার এনামুল হক বিজয় করেছিলেন সর্বোচ্চ স্কোর। এছাড়া লিটন দাস সেই বিশের ঘর পার করতে পারছেন না। অধিনায়ক নাজমুল হোসেনও ব্যর্থ হয়েছেন। মিডল অর্ডারে তাওহিদ হৃদয় ও আফিফ হোসেন কিছুটা ঝলক দেখালেও জয়ের মতো কিছু করতে পারেননি। দ্বিতীয় ওয়ানডে এই ব্যাটিংয়ের ভালো করার দিকেই চোখ টিম ম্যানেজমেন্টের। প্রথম ম্যাচের পর ওপেনার এনামুল হক বলেছিলেন ব্যাটিংয়ে দায়িত্ব নিতে না পারার হতাশার কথা। তিনি বলেন, ‘আমরা আরেকটু পরিকল্পনা করে ম্যাচটি সাজাতে পারতাম। যদি আরেকটু ধৈর্য ধরতাম, আরেকটু লম্বা সময় ব্যাট করতে পারতাম, তাহলে মনে হয় দৃশ্যপট ভিন্ন হতে পারত। যদি শেষ পাঁচ ওভারে ৫০ রানও লাগত, আমরা ম্যাচটা বের করে আনতে পারতাম।’
এদিকে নিউজিল্যান্ড কোচ মনে করছেন বাংলাদেশের বিপক্ষে অপ্রয়োজনীয় ঝুঁকি নিয়ে দলের সেরা খেলোয়াড়দের খেলানোর মানে নেই। কোচ গ্যারি স্টিড বলেন, ‘সামনে প্রচুর ম্যাচ। আমরা চাই অপ্রয়োজনীয় ঝুঁকি না নিয়ে কাইল যেন সম্ভাব্য সেরা অবস্থায় থাকে। এই সিরিজকে আমরা শুরু থেকেই নতুনদের পরখ করার সুযোগ হিসাবে দেখছি।’

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন দিন