সোমবার, ২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, বসন্তকাল | ২৩শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
সোমবার, ২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ২৩শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শ্রীপুরে মামলা রেখেই বিদ্যুতের লাইন সঞ্চালন ক্ষতি পূরণের দাবীতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

স্টাফ রিপোর্টার:

গাজীপুরের শ্রীপুরে আদালতের চলমান মামলা নিষ্পত্তি না করে গ্রেপ্তারের ভয় দেখিয়ে ফসলি জমি ও বসতবাড়ির উপর দিয়ে জোরপূর্বক উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন বৈদ্যুতিক লাইন সঞ্চালন করার প্রতিবাদে এবং ক্ষতি পুরণের দাবীতে এলাকাবাসী মানববন্ধন করেছে।
বুধবার (৭ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার বরমী ইউনিয়নের বরামা গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও গ্রামবাসী এ মানববন্ধনে অংশ নেন।
উপজেলার বরামা গ্রামে পাওয়ার গ্রীড কোং অব বাংলাদেশ লিমিটেড কর্তৃক ১৩২ কেভি উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন একটি বৈদ্যুতিক লাইন শ্রীপুর থেকে ভালুকায় সঞ্চালন করছে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।
মানববন্ধনে বক্তব্যকালে ভুক্তভোগী পরিবারের গৃহবধূ ফরিদা ইয়াসমিন ঝুমা বলেন, কোন প্রকার ক্ষতিপূরণ না দিয়ে জোরপূর্বক তাদের ফসলী জমি ও বসতবাড়ির উপর দিয়ে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন বৈদ্যুতিক লাইন সঞ্চালনের ক্ষতিপূরণ দাবি করে তার স্বামী রেজাউল করিম সোহাগ আদালতে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নিষ্পত্তি না হওয়ার পূর্বেই তার স্বামী রেজাউল করিম সোহাগকে গ্রেপ্তারের ভয় দেখিয়ে, জোরপূর্বক ফসলি জমি ও বসতবাড়ির উপর দিয়ে লাইন সঞ্চালনের কাজ করছে। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী রেজাউল করিম সোহাগ আদালতে মামলা করেছেন এবং বিদ্যুৎ ও জ্বালানি মন্ত্রী, গাজীপুর জেলা প্রশাসকসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করে অভিযোগ দায়ের করেছেন।
ভুক্তভোগী রেজাউল করিম সোহাগের মা স্বপ্না আক্তার জানান, জোরপূর্বক বৈদ্যুতিক লাইন টানানোর সময় আমরা বাধা দিতে গেলে ঠিকাদারের লোকজন আমাদের কে মারধর করেছে এবং আমাদের নির্মানাধীন বসত ঘরের অংশবিশেষ ভেঙ্গে গুড়িয়ে দিয়েছে।
আমরা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার স্থানীয় মন্ত্রী এবং প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের মাধ্যমে কাজ বন্ধ করে ক্ষতিপূরণ দাবি করছি।
বৈদ্যুতিক লাইন সঞ্চালনের দায়িত্বে নিয়োজিত বি আর পাওয়ারজেন লিমিটেডের প্রকল্প পরিচালক মোঃ শাহানুর পারভেজ কে জানান, ৭ফেব্রুয়ারি দুপুরে লাইন সঞ্চালনের কাজ করার সময় দুর্ঘটনাবশত নির্মাণাধীন বসতবাড়ির দেয়াল ভেঙে গেছে। আমরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ব্যবস্থা করবো।

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন দিন