শুক্রবার, ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, বসন্তকাল | ২০শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
শুক্রবার, ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ২০শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শাকিবের ‘স্পষ্ট’ বিষোদগার, বুবলীর ‘ইঙ্গিতে’ জবাব!

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

বিনোদন ডেস্ক:

ঢালিউড তারকা শাকিব খান ও শবনম বুবলীর সম্পর্কটা যেন সুপ্ত আগ্নেয়গিরি। যেটার অস্তিত্ব খুব একটা দৃশ্যমান নয়। কিন্তু মাঝে মধ্যে নিজের মধ্যকার বিভিন্ন ইস্যুতেই তারা বিস্ফোরিত হন, উগড়ে দেন ক্ষুব্ধ-কদর্য মন্তব্য। এই যেমন মাস কয়েক শান্ত থাকার পর ফের নতুন প্রসঙ্গে মুখের দরজা খুলে দিলেন উভয় পক্ষ।
শুরুটা করলেন অবশ্য শাকিবই। প্রাক্তনকে নিয়ে বিষোদগারের অভ্যাস তার পুরনো। সেই স্বভাবে নতুন একটি অধ্যায় যুক্ত হলো কেবল। ঘটনার শুরুটা আগে পরিষ্কার হওয়া যাক; কিছু দিন আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় গুঞ্জন ছড়ায়, সংগীতশিল্পী কৌশিক হোসেন তাপসের সঙ্গে প্রেমে জড়িয়েছেন বুবলী। এ বিষয়ে তাপসের স্ত্রী ফারজানা মুন্নীর একটি কলরেকর্ডও ছড়িয়ে পড়ে। যার ফলে নেটিজেনদের অভিযোগ, সমালোচনায় জর্জরিত হন বুবলী।
সেই বিষয়টি যখন সবাই প্রায় ভুলে যেতে বসলো, তখনই এটাকে টেনে সামনে আনলেন শাকিব। একটি টিভি চ্যানেলের সাক্ষাৎকারে অনর্গল বলে গেলেন বুবলীকে নিয়ে। তার ভাষ্য, ‘কথাগুলো বলতে চাই না। বললেও আমার নিজের কাছে নিজেকে খুব লজ্জিত মনে করব। অপমানিত মনে করব। মুন্নী ভাবিকে আমি যত স্ট্রং পারসোনালিটির মানুষ হিসেবে দেখেছি, তার মতো মানুষকে আমি এত অসহায়ভাবে আশা করিনি। আর এমন একটা মানুষকে নিয়ে কথা, যার সঙ্গে একটা সময় আমার সম্পর্ক ছিল। মুন্নী ভাবির অডিও আমি শুনেছি এবং আমাকেও যা বলেছেন, এটা আমি আশা করিনি। কখন কার রূপ যে মিডিয়াতে চেঞ্জ হয়, বলা যায় না। অ্যানিওয়ে, এটা আমার কোনও ম্যাটার না। এই ব্যাপারে আমি জড়াতেও চাই না।’
এটুকু পর্যন্ত হয়ত ঠিকঠাকই ছিল। কিন্তু শাকিব থামলেন না। টেনে আনলেন বুবলীর পুরনো কিচ্ছাও। বললেন, ‘তার তো এর আগেও অনেক স্ক্যান্ডাল শুনেছি। এই স্ক্যান্ডালটা তো তাপসের ওয়াইফ নিজে বললেন। সেটার অডিও আমরা সবাই শুনলাম। আমারটা আমি না-ই বললাম। আর ওইগুলো (স্ক্যান্ডাল) হয়ত তাদের ওয়াইফরা বলেননি বা এতটা ছড়ানোর আগে অনেক ঘটনা ঘটিয়েছেন, যে কারণে ছড়ায়নি। এই ঘটনাগুলোয় আমি অনেক কিছু আমার ঘাড়ে নিয়েছি। আমার ওপর দিয়ে দোষ গেছে, আমি চুপ করে বসে ছিলাম। তাদের বিরুদ্ধে কখনও কিছু বলতে চাইনি। আজও বলছি না। কাউকে বলছি না যে, তাপসের বউ আমাকে কী বলেছেন!’
এর বাইরে বরাবরের মতো ‘বুবলী আমার জীবনে অতীত’ বাক্যটি কয়েক দফায় মনে করালেন শাকিব। তার সম্পর্কে কিছু বলাকে ‘অনধিকার চর্চা’ মনে করেন তিনি। যদিও তার মন্তব্যের সঙ্গে এমন ভাবনা সাংঘর্ষিক।
এদিকে সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সকালে সোশ্যাল হ্যান্ডেলে সরব হলেন বুবলী। একটি বার্তায় ইঙ্গিত করলেন অনেক কিছু। যদিও সেখানে কারও নাম উল্লেখ নেই, তবু মন্তব্যটিকে শাকিবের দিকেই টেনে নিচ্ছেন নেটিজেনরা।
বুবলী বলেছেন, “ভূতের মুখে রাম রাম! অবশেষে নায়ক সাহেব বরাবরের মতোই ‘ভুয়া গুজব’ সিনেমার প্রধান পরিচালক হিসেবে সামনে আসলেন। অবশ্য এরকম পরিচালনা তার জন্য নতুন কিছু না। মজার ব্যাপার হচ্ছে নায়ক এবং তার গ্যাংয়ের সদস্যদের আমার নাম নিয়ে নিয়ে শুধু আলোচনায় থাকতে হয়। এদের রিজিকের ব্যবস্থা করছি ভেবে ভালো লাগে। চালিয়ে যান।”
এই ফাঁকে বলা দরকার, তাপসের সঙ্গে প্রেমের গুঞ্জন ছড়ানোর পর একটি বিবৃতি দিয়েছিলেন বুবলী। সেখানে তিনি স্পষ্ট ভাষায় দাবি করেন, “একটি গ্রুপ ব্যক্তিগতভাবে আমার প্রত্যেকটা কাজের জায়গায় নানাভাবে নোংরামি শুরু করেছে গত বেশ কিছুদিন ধরে। এখন আবার আমি যেই টিএম ফিল্মসের (তাপস-মুন্নীর প্রতিষ্ঠান) সঙ্গে ‘খেলা হবে’ নামে নতুন সিনেমা করতে যাচ্ছি, তাতেই এখন এখানে কিভাবে পরিবেশ নোংরা করবে, সেই পাঁয়তারা চলছে।”
বুবলীর দাবি অনুসারে, তাপসের সঙ্গে তার প্রেমের গুঞ্জনটি ভিত্তিহীন। আর সেই গুঞ্জন ছড়ানোর পেছনে কার হাত ছিল, সেটাও যেন সোমবারের (৪ ডিসেম্বর) পোস্টে আকার-ইঙ্গিতে বোঝাতে চাইলেন নায়িকা।
উল্লেখ্য, অপু বিশ্বাসের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর ২০১৮ সালের ২০ জুলাই বুবলীকে বিয়ে করেন শাকিব খান। বিষয়টি গোপন রাখেন দুজনেই। এরপর ২০২০ সালের ২১ মার্চ জন্ম হয় তাদের সন্তান শেহজাদ খান বীরের। সন্তান ইস্যুতেই তাদের বিয়ে-দাম্পত্যের গল্প সামনে আসে; তাও বিয়ের চার বছর পর, ২০২২ সালের অক্টোবরে।

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন দিন