বুধবার, ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, বসন্তকাল | ১১ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বুধবার, ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ১১ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

টানা তৃতীয়বার এমপি নির্বাচিত হলেন কমল

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

কাজী তামজিদ রিজুয়ান,কক্সবাজার:

কক্সবাজার-৩ আসন থেকে পর পর তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে হ্যাটট্রিক করেছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাইমুম সরওয়ার কমল।

মোট ১৭৬ কেন্দ্রে ১৬৭০৩৯ ভোট পেয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী মিজান সাঈদকে ১৪৫০৯৩ বিশাল ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

তার প্রতিদ্বন্ধী স্বতন্ত্র প্রার্থী মিজান সাঈদের প্রাপ্ত ভোট ২১৯৪৬।

এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত ফলাফলে দেখা গেছে যত ভোট পড়েছে তার ৮০ শতাংশ ভোট পেয়েছেন এমপি কমল।

কক্সবাজারের সাবেক সাংসদ, রাষ্ট্রদূত রামুর ওসমান সরওয়ার আলম চৌধুরীর ছেলে এমপি কমল কক্সবাজার-৩ আসনে ২০০৮ সালে প্রথমবার দলীয় মনোনয়ন পেলেও সংসদ সদস্য হতে পারেননি । পরবর্তীতে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে প্রথমবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন ২০১৪ সালে। এরপর ২০১৮ সালের নির্বাচনে ২য় বার এবং ২০২৪ সালে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে ৩য়বারের মতো আবারো এমপি নির্বাচিত হয়ে হ্যাটট্রিক করেন তিনি।

ধারাবিজয় সম্পর্কে কথা বললে এমপি কমল বলেন, আমি সারাজীবন মানুষের জন্য কাজ করেছি, তাই মানুষও আমাকে ভালোবেসে বার বার এমপি বানিয়েছে। গত ১০ বছরে আমি কক্সবাজার সদর, রামু ও ঈদগাঁও উপজেলায় এলাকার ব্যাপক উন্নয়ন করেছি। জনগণ তাই এবারও আমাকে নিরঙ্কুশভাবে ভোট দিয়েছে।

এছাড়া লাঙ্গল প্রতীকের জাতীয় পার্টি প্রার্থী মোহাম্মদ তারেক পেয়েছেন ১৩৭১ ভোট,টেলিভিশন প্রতীকের বিএনএফ প্রার্থী মোহাম্মদ ইব্রাহিম পেয়েছেন ২৬৮ ভোট, কুঁড়েঘর প্রতীকের বাংলাদেশ ন্যাপ প্রার্থী শামীম আহসান ভুলু পেয়েছেন ৫০৫ ভোট,হাতঘড়ি প্রতীকে বাংলাদেশ কল্যান পার্টির আবদুল আউয়াল মামুন পেয়েছেন ৯৮৮ ভোট।

কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু-ঈদগাঁও) আসনে ভোটার রয়েছে চার লাখ ৮৯ হাজার ৬১০ জন। ১৬৭টি ভোটকেন্দ্রের মাঝে রামুতে ৬৪টি, কক্সবাজার সদরে ৭৬টি ও নবগঠিত ঈদগাঁও উপজেলায় ৩৬টি।

মোট ভোট কাস্ট হয়েছে ১৯৫৫০৭ ভোট, বৈধ ভোটের সংখ্যা ১৯২১১৭, বাতিল হয়েছে ৩৩৯০ ভোট। শতকরা হারে প্রদত্ত ভোটের হার ৩৯.৯৩% বলে জানিয়েছেন কক্সবাজারের রিটার্নিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহীন ইমরান।

এদিকে, কমলের প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ব্যারিস্টার মিজান সাঈদের চরম ভরাডুবি হয়েছে এই আসনে।তবে তিনি ভোটে কারচুপির অভিযোগ ও এজেন্ট বের করে দেয়ার অভিযোগ এনে ভোট বর্জন করেছেন। মিজান সাঈদ পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবি জানিয়ে আবেদনও করেছেন।

বেলা ২টার দিকে কক্সবাজার জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মুহম্মদ শাহীন ইমরানের কার্যালয়ে এসে ভোট স্থগিত চেয়ে আবেদন দেয়ার পর চলমান ভোট বর্জনের ঘোষণা দেন কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু-ঈদগাঁও) আসনের ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ব্যারিস্টার মিজান সাঈদ।

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন দিন