শুক্রবার, ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, বসন্তকাল | ২০শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
শুক্রবার, ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ২০শে শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ১লা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

গরুকে ঘাস খাওয়ানো নিয়ে সংঘর্ষ ১ জন অহত

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

মোঃকামাল পারভেজ:

গরুকে ঘাস খাওয়ানো নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ১ জন গুরুতর আহত হয়ে শ্রীপুর উপজেলা সাস্হ কমপ্লেক্সএ চিকিৎসাধীন।
গত শুক্রবার ( ২ ফেব্রুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার ২নং গাজীপুর ইউনিয়নের গাজীপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
স্থানীয়রা জানায়, শ্রক্রবার দুপুরে নুরুল হকের জমিতে সিরাজ মিয়া গরুকে ঘাস খাওয়াচ্ছিলেন। জমিতে ঘাস খাওয়ানো নিয়ে তাদের সঙ্গে সিরাজ মিয়ার তর্ক হয়। একপর্যায়ে মারামারি হলে নুরুল হক নামে ১ জন গুরুতর আহত হয়েছেন ।
এ ব্যাপারে নুরুল হকের পরিবারের পক্ষ থেকে জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ আমাদের জমি সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়া বিরোধ সৃষ্টি করিয়া শত্রুতা পোষণ করত, আমাদের বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়া আসিতেছে। এমনকি পেশি শক্তির বলে আমাদের জমি জোরপূর্বক বেদখল করিয়া নেওয়ার জন্য বিভিন্ন ধরনের ষড়যন্ত্র করিয়া আসিতেছে এবং আমাদের জমিতে কোন ধরনের কাজকর্ম করিতে দেয় না। বিষয়টি আমরা এলাকার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের অবহিত করিলে এ বিষয়ে একাধিকবার শালিশ দরবার হয় এবং আমরা বিবাদীদের বিরুদ্ধে বাদী হয়ে শ্রীপুর থানায় পূর্বেও ০১টি লিখিত অভিযোগ দায়ের করি।
এরই ধারাবাহিকতায় ২ফেব্রুয়ারি বেলা অনুমান ১১.৩০ মিনিটের সময় আমি আমার জমিতে গৃহপালিত গরুকে ঘাস খাওয়াইতে গেলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরিয়া রাসেল (৩৭), পিতা— বারেক, ২। মোঃ আমিনুল (৩৮), পিতা— মোঃ সিরাজ, ৩। মোঃ সিরাজ (৬০), পিতা— মৃত ছমেদ আলীসহ ৭/৮ জন ধারালো দা, লাঠি—সোঠা,লোহার রড ইত্যাদি দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়া আমাদের জমিতে অনধিকার প্রবেশ করিয়া আমার উপর হামলা করে। একপর্যায়ে বারেক মিয়ার ছেলে রাসেল মিয়া লোহার রড দিয়া আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার মাথার উপরিভাগে উপর্যপুরি বাইরাইয়া মাথা ফাটা রক্তাক্ত গুরুতর জখম করে। ঐ সময় আমার ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে আগাইয়া আসিতে থাকিলে দৌড়ে চলিয়া যায়। পরে আমার পরিবারের লোকজন আমাকে শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে নিয়া গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার আমার জখমের সেলাই ব্যান্ডেজসহ চিকিৎসা প্রদান করে এবং অবস্থা গুরুতর হওয়ায় ভর্তি রাখেন। ঘটনার স্বাক্ষী প্রমাণ আছে।
অন্য দিকে অভিযোগ অস্বীকার করে সিরাজ বলেন, আমাদের জমিতে এসে গরুকে ঘাস খাওয়াচ্ছিল,তাকে নিষেধ করার পরও সে আমার সাথে তর্কে জরিয়ে পরে এবং আমার জমি তার জমি বলে দাবি করে। এর একপর্যায়ে মারামারি হলে নুরুল হক গুরুতর আহত ।
এ বিষয়ে শ্রীপুর মডেল থানার এস আই আশরাফুল আল তালুকদার জানান,মারামারি বিষয়ে অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থালে গিয়েছিলাম। সংঘর্ষের ঘটনা নুরুল হক নামে একজন গুরুতর আহত হন। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন দিন