বুধবার, ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, বসন্তকাল | ১১ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
বুধবার, ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ | ১১ই শাবান, ১৪৪৫ হিজরি | ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

এতদিন পার্শ্বচরিত্র হিসেবে ছিলেন তাইজুল!

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

ক্রীড়া ডেস্ক:

একাই দশ উইকেট নিয়ে নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং লাইনআপকে ভেঙে দিয়েছেন বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম। শুধু সিলেট টেস্টেই নয়, ধারাবাহিকভাবে দলে নিজের দায়িত্ব ঠিকঠাকভাবে পালন করে আসছেন বাঁহাতি এই স্পিনার। বুধবার মিরপুরে শুরু হচ্ছে ঢাকা টেস্ট। ওই টেস্ট শুরুর আগে তাইজুল প্রসঙ্গ উঠতেই প্রধান কোচ হাথুরুসিংহে বললেন, এতদিন পার্শ্বচরিত্র হিসেবে ছিলেন তাইজুল!
৪৩ ম্যাচে এখন পর্যন্ত তাইজুল উইকেট ১৮৭ উইকেট নিয়েছেন। ১০ উইকেট নিয়েছেন ৪ বার। ৫ উইকেট ১৯ বার। বাংলাদেশের জার্সিতে টেস্ট উইকেট সংখ্যার বিচারে সাকিবের পরেই আছেন বাঁহাতি এই স্পিনার। ২০০ উইকেট হতে বাকি আর মাত্র ১৩টি। সর্বোচ্চ ২৩৩ উইকেট নিয়ে সবার ওপরে আছেন সাকিব। তারপরও পার্শ্বনায়কের চরিত্রে দেখা যায় এই স্পিনারকে। বিষয়টি উল্লেখ করে হাথুরুসিংহে বলেছেন, ‘তার (তাইজুলের) ওপর সাধারণত সেভাবে আলো পড়ে না, কারণ আমাদের আরেকজন বিশ্ব মানের ক্রিকেটার আছে সাকিব (আল হাসান)। বেশিরভাগ ম্যাচে তাকে (তাইজুল) পার্শ্বচরিত্র হিসেবে খেলতে হয়েছে। তবে তার রেকর্ড অসাধারণ। প্রায় দুইশ উইকেট তার।’
মূলত সাকিব থাকলে বাড়তি একজন বাঁহাতি স্পিনার খেলানোর প্রয়োজন বোধ করে না টিম ম্যানেজমেন্ট। এই কারণেই সাকিবের আড়ালে পড়ে যেতে হয় তাইজুলকে। সেটি উল্লেখ করে হাথুরুসিংহে বলেছেন, ‘সে যখন ভালো করে, তখন তাকে নিয়ে আপনাদের কথা বলতে হবে। আমরা তাকে নিয়ে ড্রেসিংরুমের ভেতরে অনেক কথা বলি। সে অনুশীলনে বেশ মনোযোগী, যেভাবে সে প্রস্তুত হতে চায় সেটা সে খুব নিখুঁতভাবে করে। সে মানসিকভাবে খুব শক্তও। বিভিন্ন সময় রাডারের বাইরে পড়ে যায়, কারণ আমাদের আরও একটা বিশ্বমানের খেলোয়াড় আছে, সাকিব… তাইজুলকে দ্বিতীয় স্পিনার হিসেবে খেলতে হয় বেশিরভাগ সময়। অথচ তার রেকর্ডটা দারুণ। তার প্রায় ২০০ উইকেট আছে। ’
তাইজুল বাংলাদেশ দলকে অনেক দিন সার্ভিস দেবেন বলে মনে করেন হাথুরুসিংহে, ‘সে খুবই ধারাবাহিক। এই টেস্টে আমি তার যেমন ম্যাচিউরিটি দেখেছি, তাতে মনে হয়েছে রঙ্গনা হেরাথ তাকে নিয়ে অনেক ট্যাকটিক্যাল কাজ করেছে। এখন সে ব্যাটারদের ভালোভাবে সেট আপ করতে পারে। তো আমার মনে হয় সে আরও অনেক দিন দলকে খুব ভালোভাবে সার্ভিস দিয়ে যাবে।’
তার উন্নতির পেছনে রঙ্গনা হেরাথের অবদান দেখছেন প্রধান কোচ, ‘সে খুবই ধারাবাহিক। এই ম্যাচে (সিলেটে) আমি তার পরিপক্বতা দেখেছি। তার সঙ্গে রঙ্গনা হেরাথ অনেক ট্যাকটিক্যাল কাজ করেছে। সে যেভাবে ব্যাটসম্যানদের সেট-আপ করে, হেরাথের সঙ্গে অনেকটা মিল আছে। আমার মনে হয়, সে লম্বা সময় বাংলাদেশের হয়ে খেলবে।’

Facebook
LinkedIn
Twitter
WhatsApp
Telegram
Email
Print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপন দিন